শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

ব্রেইন টিউমারের গোপন লক্ষণগুলো জানেন কি?

ডেস্ক নিউজ

নওগাঁ দর্পন

প্রকাশিত : ০৬:২৬ পিএম, ১১ জুলাই ২০১৯ বৃহস্পতিবার

কম মানুষই ব্রেইন টিউমারের লক্ষণগুলো সম্পর্কে জানেন। কিন্তু এটি খুবই মারাত্মক একটি রোগ। যা খুব কম সংখ্যক মানুষেরই হয়। তবে একবার হয়ে গেলে ফলাফল খুব ভালো হয় না। আর এই রোগের গোপন কিছু লক্ষণ আছে যা অনেকেই বুঝতে পারেন না। আর যখন বুঝে তখন হয়তো অনেক দেরি হয়ে যায়। তাই চলুন জেনে নেয়া যাক ভয়াবহ এ রোগটির নীরব লক্ষণগুলো সম্পর্কে-

মাথাব্যথা
ব্রেইন টিউমার হলে তীব্র মাথাব্যথা হয় আর এই মাথাব্যথা সহজে ছেড়ে যেতে চায় না। মাঝে মাঝে সকালবেলা ঘুম থেকে উঠার সঙ্গে সঙ্গেই মাথাব্যথা শুরু হয়ে থাকে। ওষুধ খেয়েও এ রোগ ভালো না হলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

কমে যায় দৃষ্টিশক্তি
দৃষ্টিশক্তি কমে যাওয়ার মতো লক্ষণও দেখা যায় ব্রেইন টিউমার হলে। এই লক্ষণটিকে ডাক্তাররা বলেন বাইটেম্পোরাল হেমিয়ানোপসিয়া। এই কারণে ঘরের আসবাবপত্রে ঘন ঘন ধাক্কা খাওয়া বা গাড়ি অ্যাক্সিডেন্ট করার প্রবণতা দেখা যায়।

দুর্বলতা এবং আলস্য
যদি আপনার ব্রেইন টিউমার হয়ে থাকে তবে শরীরের যে কোনো জায়গায় ব্যথা অনুভব করতে পারেন। এছাড়াও হাত-পায়ে দুর্বলতাসহ এসব অঙ্গ নড়াচড়া করতে সমস্যা হতে পারে।

কথা গুছিয়ে বলতে না পারা
কথা গুছিয়ে বলতে না পারা, তোতলানো, জিনিসপত্রের নাম মনে রাখতে না পারা অথবা অন্য মানুষ কি বলছে সেটা বুঝতে না পারা- এই লক্ষণগুলো ব্রেইন টিউমারের প্রধান লক্ষণ।

খিটখিটে মেজাজ
ঘনঘন মনমরা হয়ে থাকা, রাগ এবং দুশ্চিন্তায় অনেকেই আক্রান্ত হয়ে থাকেন। তবে এইসব মানসিক লক্ষণগুলো যদি কারো মধ্যে আগে থেকে দেখা না যায় অর্থাৎ হঠাৎ করে দেখা যায় তাহলে হতে পারে ব্রেইন টিউমার।

কানে তালা লাগা
যদি কানের এক পাশ থেকে শুনতে না পান অথবা ক্রমাগত কানে তালা লাগছে এরকম টের পান তাহলে আপনার টিনিটাস হয়েছে। এটি ব্রেইন টিউমারের লক্ষণ।

বন্ধ্যাত্ব
যেসব নারীর ব্রেইন টিউমার হয়েছে তাদের সন্তান জন্মদানে জটিলতা হয়। সন্তান জন্ম নিলেও গর্ভবতী মায়ের বুকের দুধ কমে যায়।

শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে ফেলা
যদি হাটতে অসুবিধা হয়, বিশেষ করে অন্ধকারে এবং হাটার সময় একপাশে কাত হয়ে হাঁটেন, তাহলে বুঝে নিন মস্তিস্কের সেরেবেলাম অংশে টিউমার হতে পারে।