মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬   ১৫ সফর ১৪৪১

পথশিশুদের শিক্ষার আলোয় আলোকিত করার লক্ষ্য ‘পাঠশালার’ যাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নওগাঁ দর্পন

প্রকাশিত : ০৯:০৭ পিএম, ২৭ মে ২০১৯ সোমবার

শিক্ষা জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার গুলোর মধ্যে একটি। কিন্তু বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এর চিত্র ভিন্ন। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে সবার মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়া একটি চ্যালেঞ্জ। বর্তমানে বাংলাদেশে সাক্ষরতার হার প্রায় ৭১.৩২%। শিক্ষার হারের দিক দিয়ে পিছিয়ে রয়েছে দারিদ্রসীমার নিচে থাকা প্রায় ৩১ শতাংশ মানুষ।

সেই কথা মাথায় রেখে পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ফেব্রিক বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী এবাদুল ইসলাম তার কয়েকজন বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে ২০১৯ সালের ৩রা ফেব্রুয়ারি "পাঠশালা" নামক সংগঠনটির কার্যক্রম শুরু করেন। বর্তমানে সারাদেশের প্রায় ৫০০ জন তরুন এই সংগঠনের হয়ে কাজ করে যাচ্ছেন।

পাঠশালার এক্সিকিউটিভ মেম্বার ৭জন। এরা হলেন, এবাদুল ইসলাম (ফাউন্ডার),আসিফ আল মাহমুদ (কো ফাউন্ডার), নগিব মাহফুজ, মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, ইমতিয়াজ আহম্মেদ জিয়ান, আফসার উদ্দিন, মেহেদী হাসান বাবু।

পাঠশালার রয়েছে ৫টি ডিপার্টমেন্ট। এগুলো হলো: ক্রিয়েটিভ ফ্যাকাল্টি, হিউম্যান রিসোর্স ফ্যাকাল্টি, কনটেন্ট ক্রিয়েটর ফ্যাকাল্টি, ক্যাম্পাস এম্বাসেডর ফ্যাকাল্টি, আইটি ফ্যাকাল্টি। পাঠশালার মূল লক্ষ্য ও পরিকল্পনা ২০২২ সালের মধ্যে দেশের ৬৪টি জেলায় পথশিশু দের নিয়ে পাঠশালা স্কুল প্রতিষ্ঠা করা।

এছাড়াও অন্যান্য লক্ষ্যমাত্রা গুলোর মধ্যে রয়েছে:

অনলাইন বিষয়ভিত্তিক পাঠদান, পরীক্ষার মাধ্যমে একালীন মেধাবৃত্তি প্রদান, 
অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক শিক্ষামূলক সেমিনার আয়োজন করা, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আলাদা আলাদা ভাবে বিভিন্ন শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান এবং প্রতিযোগিতার আয়োজন, লেখাপড়ার পাশাপাশি প্রতিভা বিকাশে সহযোগিতা করা।

পাঠশালার লক্ষ্য বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে এর প্রতিষ্ঠাতা এবাদুল ইসলাম বলেন, পাঠশালার কাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দেশের প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হয়েছে এবং প্রতিনিধিদের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে কমিটি গঠিন করে পাঠশালা এর কাজকে পরিচালনা কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে।

প্রতিষ্ঠাতা এবাদুল ইসলাম আরো বলেন, ‘স্বপ্ন দেখি একদিন এদেশের সব পথশিশুরা শিক্ষার আলোয় আলোকিত হবে। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি সারা দেশের একঝাঁক তরুনকে সাথে নিয়ে দেশের প্রতিটি কোণায় শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে।’