রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
পত্নীতলায় আদিবাসী প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার চাকুরির প্রলোভনে মান্দার মেয়েকে ঢাকায় ধর্ষণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং (৭৮৭-৮) ড্রিমলাইনার গাঙচিল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধামইরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৬ জনের জেল ও জরিমানা আত্রাইয়ে ডেঙ্গু সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপাহারে পরিস্কার অভিযান সাপাহার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৯জন আটক গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে নিয়ামতপুরে আলোচনা সভা সাপাহারের করল্যা চাষে বিপ্লব
৩৯

৮ উপজেলায় নির্বাচনের পক্ষে তারেক রহমান, মির্জা ফখরুলের আপত্তি!

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

পঞ্চম ও শেষ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ধানের শীষে ভোট করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে বিএনপি। ১৪ অক্টোবর ৮টি উপজেলায় যে নির্বাচন হবে, সেই নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খোদ দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে হাইকমান্ডের এমন সিদ্ধান্তের বিষয়ে সাংবাদিকদের অবগত করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় মির্জা ফখরুল অত্যন্ত আক্ষেপের সঙ্গে বলেন, আগামী ১৪ অক্টোবর ৮ উপজেলায় নির্বাচন হবে। সেই ৮টি উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা নিয়ে নাখোশ হয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, মির্জা ফখরুল অনেকটা অনিচ্ছায় এমন সিদ্ধান্ত নিলেন। মূলত তিনি সহ বিএনপির অনেক সিনিয়র নেতাকর্মীর উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে আপত্তি ছিলো। আর এই কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেবার আগে বিকেলে আমাদের স্থায়ী কমিটির বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে লন্ডন থেকে স্কাইপে যুক্ত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। মির্জা ফখরুল ইসলামসহ স্থায়ী কমিটির অনেক সদস্য নির্বাচনের যাওয়ার পক্ষে না থাকলেও তারেক রহমান বলেন নির্বাচনে যেতে হবে। আর এ কারণেই মূলত বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক নেতা ক্ষোভ নিয়েই বলেন, তারেক রহমান বরাবরই উপজেলা নির্বাচনের পক্ষে ছিলেন। কারণ প্রতিটি নির্বাচন ঘিরে তিনি মনোনয়ন বাণিজ্য করতে পারেন। নির্বাচন এলেই দল না জিতলেও তার পকেট কিন্তু ঠিকই ভরে যায়। আর এ কারণেই তিনি নির্বাচন চাচ্ছেন।

এদিকে বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির অপর সদস্য মওদুদ আহমেদ বলেন, দলের অবস্থা খুব একটা ভালো না। চেয়েছিলাম, দলকে গুছিয়ে দু বছর পর স্ট্রং হয়ে নির্বাচনের জন্য লড়বো। কিন্তু তারেক রহমানের পরিকল্পনা ভিন্ন। এমন চলতে থাকলে দলকে টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়বে। সব সময় নিজের কথা চিন্তা না করে মাঝে মাঝে যদি দলের কথা চিন্তা হয়, তবে কি খুব ক্ষতি হয়ে যায়?

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর