শুক্রবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৮ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
২০৬

স্মৃতিশক্তি বাড়ায় থানকুনি পাতা

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

গোটা বিশ্বে ভেষজ সাপ্লিমেন্টের প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে। থানকুনি পাতা একটি কার্যকরী ভেষজ। হাজার বছর ধরে আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় এটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ঘরোয়া চিকিৎসায় এখনও অনেকে এটি ব্যবহার করেন। থানকুনি পাতা শরীর ও মন ভালো রাখতে সাহায্য করে। থানকুনি পাতা থেকে আরও যেসব স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়-

স্মৃতিশক্তি বাড়ায় : বয়সকালে স্মৃতিশক্তিজনিত সমস্যা দূর করতে থানকুনি পাতা দারুণ কার্যকরী। সাধারণত ডিমেনশিয়া চিকিৎসায় এ ভেষজটি ব্যবহার করা হয়। ২০১৮ সালে করা ‘ব্রেন ও বিহেভিয়ার’ শীর্ষক এক গবেষণায় দেখা গেছে, থানকুনি পাতা খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে, সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়। 

মন ভালো রাখে : থানকুনি পাতা মনের ওপর দারুণ প্রভাব ফেলে। ২০১৭ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত থানকুনি পাতা খেলে মন শান্ত হয়। এটি রাগ নিয়ন্ত্রণেও দারুণ কার্যকরী। এ পাতা গ্রহণের কিছুক্ষণ পর এর প্রতিক্রিয়া শুরু হয়।

ক্ষতস্থান সারায় : থানকুনি পাতা প্রাকৃতিক মলম হিসেবে কাজ করে। কেটে যাওয়া স্থানে এটি লাগালে দ্রুত রক্তপাত বন্ধ হয়। এটি ব্যবহারে সংক্রমণের আশঙ্কাও কমে। 

উচ্চ রক্তচাপ কমায় : আয়ুবেদ চিকিৎসায় উচ্চ রক্তচাপ কমাতে থানকুনি পাতা ব্যবহার করা হয়। গবেষণায় দেখা গেছে, এ পাতা রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণেও বেশ কার্যকরী। 

ঘা সারায় : মুখে বা বিভিন্ন ধরনের ভিটামিনের অভাবে ঘা হলে থানকুনি পাতার রস খেতে পারেন। এটি এ ধরনের সমস্যা কমাতে সাহায্য করে।

সর্দি-কাশি কমে : থানকুনি পাতার রস খেলে সর্দি-কাশির সমস্যা উপশম হয়৷

আমাশয় সারায় : অনেকেরই আমাশয়ের সমস্যা আছে। এ সমস্যা নিরাময়ে থানকুনি পাতার জুড়ি নেই। 

এছাড়া থানকুনি পাতার সঙ্গে কাঁচকলা, পেঁপে দিয়ে পাতলা ঝোল প্রতিদিন খেলে পেট পরিষ্কার হয়। সেই সঙ্গে লিভার বা যকৃতের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়। 

নওগাঁ দর্পন