সোমবার   ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১১ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
১১০

সালাউদ্দিনের কবিতা ‘নদীর পাড়’

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

নদীর পাড়ে 

                        -সালাউদ্দিন আহমেদ

 

নদীর পাড়ে গেলাম আমি 

স্নান করিব বলে,

ঢেউ গুলো দেখি এলো মেলো খেলে

মাঝ কিনারা জলে।

 

পাশেই অনেক গারু

-ছাগল পার হচ্ছে নদীর ওপারে,

প্রকৃতির এমন দৃশ্য দেখে 

আমার নয়ন গেল ভরে।

 

হঠাৎ এক সুন্দরী রমনী 

পার হতে চায় নদী,

জেলে ও মাঝি কেউ নেই সেখানে

আমি আছি হেথা কবি।

 

খঞ্জন সম হাটন তার 

দেখে জুড়াল অন্তর,

কাছে এসে বসিল পাশে 

ভয়ে বুক করে ঢড়ফড়।

 

বলিল তোমার নাম কি ভাইয়া

বসে কেন আছ হেথায়?

উত্তর আমি কি দেব ভেবে নাহি পাই। 

কিন্নরীর মত যেন চেহারা,

 দেখে হলাম আত্নহারা।

 

জবাব নাহি দিতে পারিলাম, 

মুখপানে চেয়ে রইলাম।

আমি তোমাকে কিছু বলছি ভাই

নদীর ওপার যেতে চাই।

 

কহিনু তোমার নাম কি গো সুন্দরী,

কোথায় তোমার ঠিকানা বল

কোন গ্রামের পরী?

কদম তলায় বাড়ি আমার 

নাম ময়না সুন্দরী,

নদীর ওপার যাব আমি 

আমিন মামার বাড়ি।

 

কথা বলতেই মাঝি ভাই এল

 বলিল আপু যাবেন?

আমার আবার তাড়া আছে 

জলদি করিয়া উঠেন।

 

চলে গেল নদীর ওপার 

আমি রয়ে গেলাম একা,

কবে তুমি আসবে ময়না 

হবে আবার দেখা।

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর