মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬   ১৬ রমজান ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
১০৬

সরকারী ক্রয়ে ওজন-মানে নো কম্প্রোমাইজ: খাদ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল ২০১৯  

সরকারি ভাবে খাদ্যশস্য সংগ্রহকালে সঠিক ওজন ও মানের দিকে কড়া নজরদারি রাখতে কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশনা দিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। 

মন্ত্রী বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই বোরো মওসুমের ধান, চাল ও গম কেনা হবে। শস্য ক্রয়ে কোন ধরনের অনিয়ম মেনে নেওয়া হবে না। অনিয়ম হলে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেবে মন্ত্রণালয়। প্রকৃত কৃষকরা যাতে সরকারী গুদামে গিয়ে সরাসরি উৎপাদিত সশ্য দিতে পারেন সেদিকেও নজর রাখতে কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

মন্ত্রী আরো বলেন, কৃষকের উন্নয়নে বর্তমান সরকার সার বীজ সহ নানা বিধ কৃষি প্রণোদনা দিচ্ছে। উৎপাদিত শস্যের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করাটা আমাদের চ্যালেঞ্জ। একই সাথে পুষ্টি সমৃদ্ধ  খাদ্য নিশ্চিত করতে কাজ করছে সরকার।

দুপুরে নওগাঁর পোরশা উপজেলার সরাইগাছি এলাকায় পোরশা খাদ্য গুদাম পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। 

গুদামে গিয়ে মজুতকৃত সশ্যের গুনগতমান ও মজুদ পরিস্থিতির খোঁজ খবর নেন। এ সময় জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোঃ কামাল হোসেনসহ খাদ্য বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

পরে পোরশা উপজেলা পরিষদ চত্বরে আয়োজিত কৃষি প্রণোদনা বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেন মন্ত্রী মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। 

অনুষ্ঠানে তিনি প্রকৃত কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে ৫০৫০ কেজি আউশ ধানের বীজ, ১৫ হাজার ১১৫ কেজি ডিএপি সার, দশ হাজার একশ কেজি এমওপি সার বিতরণ করেন। এসব প্রণোদনার মোট মূল্য ৮ লাখ ৭৮ হাজার ৭০০ টাকা। 

সংশ্লিষ্টরা জানান, কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আউশ প্রণোদনা হিসেবে এবার পোরশা উপজেলার ১ হাজার ১০ জন প্রকৃত কৃষকদের মাঝে প্রতিজনকে ৫ কেজি করে আউশ ধানের  বীজ, ১৫ কেজি ডিএপি সার ও ১০ কেজি এমওপি সার প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়া একই অনুষ্ঠানে ১০ জন ভিজিডি উপকারভোগীর মাঝে ৩০ কেজি করে পুষ্টি চাল বিতরণ করা হয়।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর