ব্রেকিং:
নওগাঁয় ১৫টি সাউন্ড বোমা, ৯টি ককটেল ও জিহাদী বইসহ ৬ শিবির ক্যাডার গ্রেফতার

মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬   ১৫ সফর ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
পত্নীতলায় আদিবাসী প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার চাকুরির প্রলোভনে মান্দার মেয়েকে ঢাকায় ধর্ষণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং (৭৮৭-৮) ড্রিমলাইনার গাঙচিল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধামইরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৬ জনের জেল ও জরিমানা আত্রাইয়ে ডেঙ্গু সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপাহারে পরিস্কার অভিযান সাপাহার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৯জন আটক গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে নিয়ামতপুরে আলোচনা সভা সাপাহারের করল্যা চাষে বিপ্লব
১০১

রাণীনগরে গভীর নলকূপে বিদ্যুৎ সংযোগ নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা পারইল ইউনিয়ন পরিষদ। এই পরিষদের আওতায় পারইল মৌজায় পারইল মাঠে চাষাবাদের জন্য জমিতে সেচ দেওয়ার লক্ষ্যে ব্যক্তি মালিকানায় স্থাপন করা হয় একটি গভীর নলকূপ। কিন্তু সংযোগ প্রদানের নিদের্শ পাওয়ার প্রায় ৯মাস পার হলেও অজ্ঞাত কারনে রাণীনগর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এখনো বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেনি। সংযোগ না দেওয়ায় গভীর নলক’পের আওতায় প্রায় কয়েক শত বিঘা জমির আবাদ হুমকির মুখে পড়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পারইল ইউনিয়নের পারইল মাঠের ধান ও অন্যান্য ফসলে সেচ দেওয়ার লক্ষ্যে ওই গ্রামের মৃত দেশারতুল্লাহ মন্ডলের ছেলে নছির উদ্দিন মন্ডলসহ কয়েকজন মিলে পারইল মৌজার ৭৬নং জেএল, ২০৭৪ দাগ নম্বর জমিতে ব্যক্তি অর্থের মাধ্যমে একটি গভীর নলকূপে স্থাপন করেন ২০০৮ সালে। স্থাপনের পর থেকে নলক’পটি তেলের মাধ্যমে পরিচালনা করে আসছিলেন তারা।

গভীর নলকূপটি দীর্ঘ প্রায় ১১বছর বিদ্যুৎ বিহীন থাকা সংযোগ পাওয়ার আশায় বিভিন্ন মাধ্যমে প্রক্রিয়া শেষে চলতি বছরের জানুয়ারী মাসে নলকূপে সেচ বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করার জন্য রাণীনগর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে সেচ সংযোগের ছাড়পত্র প্রদান করেন নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রধান কর্মকর্তা।

কিন্তু এই ছাড়পত্র পাওয়ার প্রায় ৯মাস অতিবাহিত হলেও অজ্ঞাত কারণে এখনো পর্যন্ত নলকূপে সেচ সংযোগ দেয়া হয় নাই। এতে করে চরম হুমকির মুখে পড়েছে এই গভীর নলকূপে আওতায় থাকা কয়েকশত বিঘা জমির আবাদ। বর্তমানে তেল দিয়ে জমিতে সেচ দেওয়া অনেক ব্যয়বহুল। তাই জমিতে ফসল উৎপাদনের খরচ অনেক বেশি হওয়ার কারণে হতাশায় পড়েছেন এই অঞ্চলের কৃষকরা।

গভীর নলকূপের প্রধান অংশীদার নছির উদ্দিন মন্ডল বলেন বর্তমানে এই উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন হলেও আমরা প্রায় ১১বছর যাবৎ একটি সেচ সংযোগ পাই নাই। লাখ লাখ টাকা খরচ করে সেচ সংযোগের জন্য সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হলেও অজ্ঞাত কারণে সংযোগ দিচ্ছে না রাণীনগর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি। আমরা তেল দিয়ে আর সেচ কাজ চালাতে পারছি না। কারণ এতে করে কৃষকদের ফসল উৎপাদনে খরচ পড়ে যাচ্ছে অনেক।

এছাড়াও রাণীনগর জোনের অবহেলায় সাম্প্রতিক কালের বোরো মৌসুমে সেচ কাজ করা সম্ভব হয় নাই। এই কারণে অনেক কৃষক পানি সেচের জন্য জমিতে ধানও চাষাবাদ করতে পারেননি। তাই সরকারের কাছে আমাদের আকুল আবেদন অতিদ্রুত সেচ সংযোগটি প্রদান করে এই অঞ্চলের কৃষকদের বাঁচানোর তাগিদে সুষ্ঠু পদক্ষেপ নিবেন।

নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রাণীনগর জোনের ডিজিএম মো: আসাদুজ্জামান বলেন, এই গভীর নলকূপে সেচ সংযোগ দেওয়ার সকল কাজ সম্পন্ন হয়েছে কিন্তু অভ্যন্তরিন একটি জটিল সমস্যার কারণে সংযোগটি দিতে পারছি না। সমস্যাটি সমাধান হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সংযোগ প্রদান করবো। নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস)-১ জেনারেল ম্যানেজার মো: এনামুল হক প্রামাণিক বলেন এই গভীর নলক’পের বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের ক্ষেত্রে একচি অভ্যন্তরিন সমস্যা দেখা দিয়েছে। আশা রাখি অতিদ্রুত এই সমস্যা সমাধান করে সংযোগ প্রদান করা হবে।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর