শনিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৬   ০৫ রজব ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
৬২

রওশনের চেয়ারম্যান পদ অবৈধ, বলছেন কাদেরপন্থীরা

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

জাতীয় পার্টির (জাপা) সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেছেন, রওশন এরশাদের চেয়ারম্যান পদ অবৈধ। এটা গঠনতন্ত্র বিরোধী। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি একটি এবং দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জিএম কাদেরই চেয়ারম্যান।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘জাতীয় পার্টিতে কিছু কুচক্রীমহল কুৎসা রটনা করছে ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। গঠনতন্ত্র মোতাবেক, গঠনতন্ত্রের বাইরে কারও কিছু করার সুযোগ নাই। গতকাল আমাদের একজন সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য জাতীয় পার্টির একজনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করেছেন। যেটা সম্পূর্ণ অবৈধ এবং এটা তাঁর কাছ থেকে আমরা আশা করিনি। এটা গঠনতন্ত্র বিরোধী। এইভাবে দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে গর্হিত অপরাধ করেছেন।’

গতকাল বৃহস্পতিবার এরশাদপত্নী রওশনকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, এইচ এম এরশাদ বলে গেছেন তাঁর মৃত্যুর পরে তাঁর ছোট ভাই জি এম কাদের পার্টির চেয়ারম্যান হবেন এবং নেতা কর্মীরা তাঁকে মেনে চলবেন।

১৭ আগস্ট সভাপতিমণ্ডলীর এক সভা হয়েছিল দাবি করে জাতীয় পার্টির এই নেতা বলেন, সে বৈঠকে ৩৪ জনের মধ্যে ২৬ জন বলেছিলেন পার্টির যিনি চেয়ারম্যান তিনিই হবেন বিরোধী দলের নেতা। তার ভিত্তিতেই পার্লামেন্টারি সভা ডেকেছিলেন তাঁরা। যেখানে তাঁদের দলের ১৫ জন সাংসদ জিএম কাদেরকে বিরোধী দলীয় নেতা করতে সম্মতি জ্ঞাপন করেন। তিনি আরও জানান, কোথাও লেখা নেই পার্লামেন্টারি বোর্ডের সভা ডেকে বিরোধী দলের নেতা, উপনেতা বা হুইপ নির্বাচন করতে হবে। ক্ষমতাবলে চেয়ারম্যান নিজেই তা করতে পারেন। রওশনপন্থীরা জাতিকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য জিয়াউদ্দিন বাবলু বলেন, রওশন এরশাদকে চেয়ারম্যানের ঘোষণা যিনি দিয়েছেন তিনি অবৈধ কাজ করেছেন, আর যিনি প্রতিবাদ করেননি তিনিও গঠনতন্ত্রের সীমা লঙ্ঘন করেছেন। তিনি জানান, গঠনতন্ত্র যারা লঙ্ঘন করেছেন তাঁদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আজকের বৈঠকে আলোচনা চলছে। তিনি আরও বলেন, জাতীয় পার্টি একটিই আর তার চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

রওশন এরশাদের চেয়ারম্যান ঘোষণা ও জিএম কাদেরের পাল্টা সংবাদ সম্মেলনের কোনোটিতেই জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঁঙ্গাকে দেখা যায়নি। আজকের বৈঠকেও তিনি ছিলেন না। তাঁর বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে কাজী ফিরোজ রশীদ সরাসরি উত্তর না দিয়ে বলেন, তাঁর হয়তো নিজের কাজ থাকতে পারে।

বৈঠকের আগে রংপুর-৩ আসনের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকারও হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।এই আসনের প্রার্থী জিয়াউদ্দিন বাবলুর স্ত্রী জেবুন্নেসার সাক্ষাৎকার ফোনে নেওয়া হয়েছে। আর সাদ এরশাদ মনোনয়ন ফরম জমা দেননি বলে জানানো হয়।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের সভাপতিত্বে বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন সুনীল শুভ রায়, সালমা ইসলাম, নাজমা আকতার, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, মামুনুর রশীদ, আলমগীর সিকদার প্রমুখ।

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর