মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯   আষাঢ় ৫ ১৪২৬   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
১৯

ব্রিস্টলে বাংলাদেশের সামনে অনেক সমীকরণ

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯  

এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে দুর্বল দুটি দলের নাম বলুন? হলফ করে বলা যায়, আফগানিস্তান ও শ্রীলংকা, এই দুটির দলের নামই আপনার মনে এসেছে। মাঠের লড়াই দূরের কথা অন্তত কাগজে-কলমেও এই দল দুটিকে প্রতিপক্ষ দলগুলোর চেয়ে এগিয়ে রাখবে না কেউই। আর এই দুটি দলের বিপক্ষে বাংলাদেশ যে জিতবেই সেই বিষয়ে কিন্তু টাইগার সমর্থকদের মনে কোনো সন্দেহ নেই।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যেতে হলে কমপক্ষে পাঁচটি ম্যাচে জিততে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সেই পথে প্রথম ধাপটা কিন্তু দিয়েই রেখেছে বাংলাদেশ। শ্রীলংকা আর আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রত্যাশিত জয় পেলে আর দুটি ম্যাচে জয় পেলে চলবে। সেক্ষেত্রে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রাথমিকভাবে লক্ষ্য বানাতে পারেন মাশরাফি। এখনই এতো দূরের ভাবনা না ভাবলেও চলবে ‘দ্য ক্যাপটেনের’। ব্রিস্টলে আজ শ্রীলংকার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে জয়ের প্রত্যাশায় রয়েছেন টাইগাররা। আজ দুইয়ে দুইয়ে মিলে গেলেই লঙ্কাজয় খুবই সম্ভব।

ব্রিস্টলে আজ বাংলাদেশের প্রধান প্রতিপক্ষ ‘কন্ডিশন’। শহরটির আকাশ যেভাবে ক্রন্দন শুরু করেছে তাতে করে শ্রীলংকার চেয়ে কন্ডিশনের বিপক্ষে প্রথম লড়াইটা করতে হবে টাইগারদের। সবকিছু যদি ভালোয় ভালোয় এগায় আর প্রকৃতি দেবী টাইগারদের ওপর কৃপা বর্ষণ করেন তাহলে তো সোনায় সোহাগা।

ব্রিস্টল কিন্তু ইংল্যান্ডের অন্য উইকেটগুলোর মতো ‘রান প্রসবা’ নয়। এখানে খেলা ৩৬টি ইনিংসের কেবল ছয়টিই তিনশোর্ধ রান পার করতে পেরেছে। দেশটির সিমিং ও বাউন্সি উইকেটগুলোর মধ্যে এই ব্রিস্টল একটি। এবারের আসরে এই ভেন্যুতেই অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের গোলার সামনে মাত্র ২০৭ রানে অলআউট হয় আফগানিস্তান। ২০১৭ সালে এখানে ১২৬ রানে অলআউট হয় আয়ারল্যান্ড। উইকেটের বিষয়টি মাথায় রেখে ব্রিস্টলে একজন বাড়তে পেসার খেলাতে পারে টিম বাংলাদেশ। সেক্ষেত্রে রুবেল হোসেনকে মূল একাদশে দেখলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

সম্প্রতি কিছু ম্যাচে বেশ ভালো রানও হয়েছে এই ভেন্যুতে। বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক কিছুদিন আগে এখানে ৩৫৮ রান করেছিল পাকিস্তান। জনি বেয়ারস্টোর অসাধারণ ব্যাটিংয়ে ৫ ওভার হাতে থাকতেই ম্যাচটা জিতে নেয় ইংল্যান্ড। ব্যাটসম্যানদের কথা বিবেচনায় নিলে ব্রিস্টলে ব্যাটিং লাইন আপে পরিবর্তন আনতেই পারে বাংলাদেশ। ফর্মহীনতায় থাকা মিঠুনের বদলে লিটন দাসকে সেরা একাদশে আনা হতে পারে।

ব্রিস্টলে মাঠে নামার আগে কিছু সুখস্মৃতি হাতড়ে নিতে পারে টিম বাংলাদেশ। ২০১০ সালে এখানে ইংল্যান্ডকে ৫ রানে হারিয়েছিলেন মাশরাফিরা। সেবার খেলা পাঁচজন ক্রিকেটার কিন্তু বিশ্বকাপের স্কোয়াডে রয়েছেন। সেবার ম্যাচ সেরা হয়েছিলেন মাশরাফি। অধিনায়ক যদি ২০১০ এর স্মৃতি ফিরিয়ে আনতে পারেন তাহলে কিন্তু লঙ্কাজয় খুব কঠিন হওয়ার কথা নয়।

এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে ভঙ্গুর ব্যাটিং লাইনআপ শ্রীলঙ্কার। বিশ্বকাপে দুই ম্যাচেই ব্যর্থ হয়েছেন ম্যাথুস-পেরেরারা। নিউজিল্যান্ডের পেস আর আফগানিস্তানের স্পিনের সামনে বালির বাধের মতো ভেঙে পড়েছে দলটির ব্যাটিং দূর্গ। করুনারত্নে ও কুশল পেরেরা ছাড়া বলার মতো রান করেননি কোনো লংকান ব্যাটসম্যান। সুযোগটা হাতছাড়া হতে দিতে চাইবেন না মাশরাফি।

প্রথমে ব্যাটিং করলে আর ভালো একটা স্কোর দাঁড় করাতে পারলে লংকানদের রুখে দেওয়াটা সম্ভব হবে। আর যদি লংকানরা প্রথমে ব্যাটিং করে তাহলে সম্মিলিতভাবে আক্রমণ করতে হবে। মুস্তাফিজ-মাশরাফি-সাকিব-মিরাজরা যদি নিজের সামর্থ্যমতো পারফর্ম করতে পারেন তাহলে অল্পরানেই লংকানদের আটকানো সম্ভব হবে। আর বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা যে আগুনে ফর্মে রয়েছেন তাতে প্রায় নিশ্চিতভাবেই বলা যায়, লঙ্কাজয়, খুব একটা দূরে নয়!

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর