শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৪ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
ধামইরহাটে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও পুরুস্কার বিতরণী মান্দায় ৩টি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সবাই ফেল! নিয়ামতপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন আত্রাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা মান্দায় তিন বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আটক ১ রাণীনগরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৃক্ষ রোপণ রেলপথের দাবিতে হাঁপানিয়ায় মানববন্ধন নওগাঁয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত মান্দায় বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙে ৩১ গ্রাম প্লাবিত জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাণীনগরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা অনুষ্ঠিত
২২২

বিসিবির হাতেই এবার বিপিএল সম্প্রচারের দায়িত্ব

প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) বিগত আসরগুলোর সম্প্রচার নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। সম্প্রচারের নিম্নমান, মাত্রাতিরিক্ত বিজ্ঞাপন, ক্যামেরার বাজে ফ্রেমিং, সম্প্রচারের সঙ্গে জড়িতদের উপস্থাপন ভঙ্গি এসব নিয়ে গত আসরেও ছিল নিন্দা-সমালোচনার ঝড়। সেই সমালোচনার বাঁধ ভাঙতে এবার বিপিএলের সম্প্রচারের দায়িত্ব নিজেদের হাতেই রাখছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ৫ জানুয়ারি শুরু হবে বিপিএলের ষষ্ঠ আসর। আসরকে সামনে রেখে এরইমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছে আয়োজক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।

বিগত আসরগুলোর ত্রুটি-বিচ্যুতি দূর করে এবার বেশ কিছু জায়গায় পরিবর্তন আনতে চায় কর্তৃপক্ষ। এরই অংশ হিসেবে এবার সম্প্রচারের দায়িত্ব থাকবে বিসিবির অধীনেই।

বিসিবি সূত্রে জানা গেছে- বিপিএলের বিগত আসরগুলোর সম্প্রচার কাজের জন্য মাঠে মোট ১৭টি (কিংবা ১৮টি) ক্যামেরা ব্যবহার করা হতো। এতে পুরো মাঠ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মত কভারেজ পাচ্ছে কি না এ প্রশ্ন ছিলই। এবার বাড়ছে ক্যামেরার সংখ্যা। ষষ্ঠ বিপিএলে সম্প্রচার কাজে ব্যবহার করা হবে মোট ২৬টি ক্যামেরা! গ্রাফিক্স কাজে নতুনত্ব আনার পাশাপাশি ব্যবহার করা হবে স্পাইডার ক্যাম, থাকছে ডিআরএসের ব্যবহারও। আর এ সব সুবিধা দিতে পারবে এমন শর্তে বড় কোনো প্রোডাকশন হাউজের সঙ্গেই চুক্তি করা হবে।

এদিকে সমালোচনা ছিল ধারাভাষ্য নিয়েও। ধারাভাষ্যকারদের অনেক ত্রুটি গত আসরে সমালোচনা কুড়িয়েছিল। এর আগে নিউজিল্যান্ডের ধারাভাষ্যকার ড্যানি মরিসন বেশ প্রাণবন্ত ছিলেন মাইক্রোফোন হাতে। এবারও তাকে নিয়ে আসা হচ্ছে বিপিএলের জন্য। থাকবেন বিশ্বমানের আরো কয়েকজন ধারাভাষ্যকার। এছাড়াও আম্পায়ারিং নিয়ে অসন্তোষ দূর করতে বিশ্বের প্রথম সারির কয়েকজন আম্পায়ারকে দেয়া হবে বিপিএলের ম্যাচগুলো পরিচালনার দায়িত্ব।

বিপিএল শুরুর সময়েও থাকবে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের আমেজ। নির্বাচন পরবর্তী পরিস্থিতি কেমন থাকবে তা নিয়ে রয়েছে শঙ্কা। এজন্য এবারের বিপিএলে কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন রাখা হয়নি। কোনো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াই এবার মাঠে গড়াবে বিপিএল।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর