শনিবার   ২০ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
ধামইরহাটে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও পুরুস্কার বিতরণী মান্দায় ৩টি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সবাই ফেল! নিয়ামতপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন আত্রাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা মান্দায় তিন বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আটক ১ রাণীনগরে ছাত্রলীগের উদ্যোগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৃক্ষ রোপণ রেলপথের দাবিতে হাঁপানিয়ায় মানববন্ধন নওগাঁয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত মান্দায় বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ভেঙে ৩১ গ্রাম প্লাবিত জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাণীনগরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও আলোচনা অনুষ্ঠিত
৪২

বিল গেটস ও জেফ বেজোস কেন থালাবাসন মাজেন?

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০১৯  

জেফ বেজোস ও বিল গেটস।

জেফ বেজোস ও বিল গেটস।

দুনিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের শীর্ষ দুজন তাঁরা। আধুনিক কালের রাজা–বাদশাহ বলা যায় নির্দ্বিধায়। তুড়ি বাজালেই হতে পারে যেকোনো মুশকিলের ত্বরিত সমাধান। অথচ বিল গেটস ও জেফ বেজোস রোজ রাতে থালাবাসন ধুয়ে রাখেন নিজ হাতেই। কেবল নিজের প্লেট বা গ্লাসই নয়, পরিবারের বাকিদের এঁটো ঘটিবাটিও সাফ করেন যত্ন নিয়ে।

২০১৪ সালে বিজনেস ইনসাইডারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আমাজন ডটকমের প্রধান বেজোস বলেছিলেন, ‘আমি রোজ থালাবাসন মাজি। আমি বিশ্বাস করি, আমার করা কাজগুলোর মধ্যে এটিই সবচেয়ে দারুণ।’

মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস কী বলেন এ ব্যাপারে? ২০১৪ সালে রেডিট আস্ক মি অ্যানিথিং নামের প্রশ্নোত্তর পর্বে জানতে চাওয়া হয়েছিল, ‘অন্যরা আপনার কাছ থেকে আশা করে না এমন কী আছে যা আপনি উপভোগ করেন?’ গেটসের উত্তর ছিল বেজোসের মতোই, ‘আমি রোজ রাতে থালাবাসন মাজি। অনেকেই অন্যদের সাহায্য নেয় কিন্তু আমি নিজেই করতে ভালোবাসি।’

দুই ধনকুবের যে কারণেই থালাবাসন মাজুন না কেন, বিজ্ঞান বলে, এতে করে সৃজনশীলতার বিকাশ হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটি একটি গবেষণা করেছিল। তাতে দেখা গেছে, শিক্ষার্থীরা থালাবাসন মাজার পর নিজেদের ফুরফুরে মেজাজে আবিষ্কার করে। এ ধরনের কাজের সময় শিক্ষার্থীরা শ্বাস–প্রশ্বাস, স্পর্শ, ঘ্রাণে মনোযোগ দেয় বেশি। এর ফলেই মানসিক চাপ যায় কমে। নতুন কোনো কাজের অনুপ্রেরণাও খুঁজে পায়। হালকা গরম পানি স্পর্শ করার অনুভূতি অথবা সাবানের ঘ্রাণ মস্তিষ্ককে উদ্দীপিত করে।

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া, স্যান্টা বারবারার আরেক গবেষণায় জানা গেছে, এলেবেলে কাজের সময় সৃজনশীল সমস্যা সমাধানে তৎপর হয়ে ওঠে আমাদের মস্তিষ্ক। অতএব এরপর যখনই নোংরা থালাবাসন দেখবেন, ঝাঁপিয়ে পড়ুন সেগুলোর ওপর। এর ফলে যে আপনি বিল গেটস বা জেফ বেজোস বনে যাবেন, তা নিশ্চিত করে বলা যায় না। তবে আপনি যে প্রশান্তি পাবেন এবং সৃজনশীল চিন্তা করতে পারবেন, তা প্রায় নিশ্চিত।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর