বুধবার   ২৭ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭   ০৪ শাওয়াল ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
৪৮

বদলগাছীর ছোট যমুনা নদী এখন মরা খাল!

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৬ এপ্রিল ২০২০  

নওগাঁর বদলগাছীতে ছোট যমুনা নদী তার যৌবন হারিয়ে যেন বুকফাটা বালুচরের পরিনত হয়েছে। নদীর বুক জুড়ে বোরো ধান সহ বিভিন্ন ফসল চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পেয়ে প্রাকৃতিক পরিবেশ বিপর্যয়ের পূর্বাভাস দেখা দিয়েছে।

বদলগাছী উপজেলার কোল ঘেঁষে প্রবাহিত ছোট যমুনা নদীতে বর্ষার মৌসুমে ১/২ মাস জোয়ার থাকে, বিগত কয়েক বছর থেকে ছোট যমুনা নদী তার আপন সত্বা হারিয়ে আগাম শুকিয়ে যাওয়ায় নদীর বুকে কোথাও কোথাও সাফল্যজনক ভাবে বোরো ধান সহ বিভিন্ন ফসল করছে স্থানীয় ভূমিহীন কৃষকরা। অথচ এই নদীই ছিল এক সময় এই এলাকার মানুষের নৌকায় ছিল যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম নদী। তীব্র গরমে গ্রামের ছোট ছেলে মেয়েদের নদীর জলে সাঁতার কাটা দৃশ্য, এখন শুধু যেন স্মৃতি হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে বদলগাছীর এই ছোট যমুনা নদীই যেন নিষ্প্রাণ, মরা খালে পরিনত হয়ে পড়েছে। জলবায়ুর পরিবর্তন আর প্রাকৃতিক বিরূপ প্রভাবে নদীকে নিয়ে যত ছন্দ কবিতা আর গান সব কিছুতেই যেন কলম আজ থমকে দাঁড়িয়েছে।

বদলগাছীর উপর দিয়ে প্রবাহিত সেই খর স্রোত ছোট যমুনা নদী শুধু বর্ষাকালে কয়েকদিনের জন্য ফুটে ওঠে। বাস্তব চিত্র এখন নদীর তলায় চাষাবাদ হচ্ছে। ছোট যমুনার বর্তমান গতি পথ কূল কিনারা দেখে উপজেলার সচেতন প্রবীন মানুষদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তাদের ধারনা আগামী ১০ বছর পর ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে কবির কাব্য কথা কিংবা শিল্পীর গানের কথার মতই হয়ত বা মনে করবে এই খানে এক নদী ছিল।

বদলগাছীর কাদিবাড়ী ঘাটে প্রবীণ সাধু মাঝি বলেন, নদীর গতি পথ নদীর প্রাণ সেই গতি পথ যদি হয় রুদ্ধ আর ভরাট তাহলে নদীতে থাকবে না আর জল, চলবে না নৌকা গাইবে না মাঝি গান নদী যেন নিষ্প্রাণ। তেজাপাড়া গ্রামের আশাফ উদ্দীন, মজিবর রহমান, ভুট্টু সহ অনেকেই বলেন আমরা নদী শুখানো পেয়ে শুধু বোর মৌসুমে ধান চাষ করি।

উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ হাসান আলী বলেন, উপজেলাতে ছোট যমুনা নদীতে প্রায় ১৫ থেকে ১৮ হেক্টর নদীর চরে ধান চাষ হয়েছে। তাই সচেতন মহলের অভিমত আমাদের এই ছোট যমুনা বাঁচাতে হলে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে সেই সাথে সরকার যদি মনে করে নদী খননের মধ্য দিয়ে আবারো ফিরিয়ে আনবে নদীর সেই নাব্যতা ও ভরা যৌবন।

উপজেলা চেয়ারম্যান সামসুল আলম খান বলেন, একদিকে দীর্ঘদিন ধরে নদী খননের কোন ব্যবস্থা নেই উন্নদিকে নদীর দুধারে বসত বাড়ী করে নদীর জায়গা দখল করে নিচ্ছে। এবিষয়ে নওগাঁ জেলা পানিউন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা সুদান সু কুমার মন্ডল বলেন ছোট যমুনা নদীর যে অবস্তা সরকারী ভাবে প্রকল্প করে খননের ম্যাধমে সমাধান করা সম্ভব।

এন/কে

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর