সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৩ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৮ জনের রাণীনগরে গোয়াল ঘরের তালা ভেঙ্গে কৃষকের ৫টি গরু চুরি পোরশায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই বছরের শিশুর মৃত্যু রাণীনগরে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁয় তরুন তরুনীদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত গনসচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে নওগাঁ সদর মডেল থানা পুলিশের র‌্যালী সাপাহারে জনসচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা রাণীনগরে গাঁজাসহ আটক ২ নওগাঁ ১১ জনের ডেঙ্গু সনাক্ত, ৮ জন চিকিৎসাধীন আত্রাই থানা পুলিশের সচেতনতা মূলক র‌্যালি অনুষ্ঠিত ধামইরহাটে গনসচেতনতা দিবস উপলক্ষে র‍্যালী অনুষ্ঠিত সাপাহারে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মশক নিধন লিফলেট বিতরণ ৬ দফা দাবিতে নওগাঁ প্রেসক্লাবে হেযবুত তওহীদের সংবাদ সম্মেলন মান্দায় ‘মাদক ও ইভটিজিং সচেতনতা কার্যক্রম’র আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
২৩৫

বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কারের ভূমিকা ও সাফল্য

প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন এবং সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনার সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে এবং নিয়েছে বিভিন্ন উদ্যোগ ও পদক্ষেপ। কৃষি ক্ষেত্র তার মধ্যে অন্যতম। কৃষি সম্প্রসারণের মাধ্যমেই দেশের অর্থনীতির সমৃদ্ধি সম্ভব কারণ দেশের অধিকাংশ মানুষ পত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কৃষির উপর নির্ভরশীল। তাই কৃষি ক্ষেত্রে উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে আগ্রহী করতে চালু করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার।

কৃষি ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ও অনুকরণীয় অবদানের জন্য রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার। যার পূর্বনাম ছিল রাষ্ট্রপতি কৃষি উন্নয়ন পদক। এই পুরস্কারে আগ্রহী হয়েছে মহাদেবপুরের কৃষকরা। আর এর ফলস্বরূপ ২০১৬ সালে নওগাঁর মহাদেবপুরের মো. শামসুদ্দিন মণ্ডল এই পুরস্কার পান। কৃষি উন্নয়নে গবেষণা ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এই সম্মাননা দেয়া হয়। যার ফলে এখন মহাদেবপুর উপজেলায় কৃষি উৎপাদনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা কৃষিকাজে উৎসাহিত হয়েছে। ফলশ্রুতিতে বেড়েছে উৎপাদন এবং আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে কৃষকদের মধ্যে। এছাড়া, কৃষিবিজ্ঞানী, কৃষিবিদ ও মাঠকর্মীদের প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে এই পুরস্কার সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর এ পুরস্কার বিতরণসহ অন্যান্য কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে পুনরায় এ পুরস্কার চালু করে।

উল্লেখ্য, প্রত্যেক পদকপ্রাপ্তদের পদক ও সনদের পাশাপাশি স্বর্ণপদক প্রাপ্তদের এক লাখ টাকা, রৌপ্যপদক প্রাপ্তদের ৫০ হাজার টাকা এবং ব্রোঞ্জপদক প্রাপ্তদের ২৫ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর