মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯   আষাঢ় ৫ ১৪২৬   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
৩০৫

প্রথমবার পরিচালন মুনাফা কমার আশঙ্কা করছে স্যামসাং

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০১৯  

বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে চীনা ব্র্যান্ডগুলোর কারণে তীব্র প্রতিযোগিতা এবং চিপের দাম কমতে থাকায় দুই বছরের মধ্যে প্রথমবার পরিচালন মুনাফা কমার আশঙ্কা করছে স্যামসাং। গতকাল অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকের আয়ের পূর্বাভাসে এমন আশঙ্কার কথাই জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি। খবর এএফপি।

বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতা স্যামসাং। শুধু তা-ই নয়, বৈশ্বিক মেমোরি চিপ বাজারেও শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ডিভাইসের ব্যাটারি বিস্ফোরিত হয়ে অগ্নিকাণ্ড, কয়েক লাখ ইউনিট ত্রুটিপূর্ণ ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস ফেরত নেয়া এবং ঘুষ কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে স্যামসাং প্রধানের জেল হওয়ায় কয়েক বছর ধরেই প্রতিষ্ঠানটিকে প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে, তা সত্ত্বেও এতদিন রেকর্ড পরিমাণ মুনাফার মুখ দেখেছে স্যামসাং।

বিবৃতিতে স্যামসাং জানায়, ২০১৮ সালের চতুর্থ প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর) আর্থিক খতিয়ানে কয়েক বছরের প্রতিকূল পরিস্থিতির নেতিবাচক প্রভাব পড়তে যাচ্ছে। অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকের জন্য পরিচালন মুনাফা ১০ দশমিক ৮ ট্রিলিয়ন ওনে (৯৮০ কোটি ডলার) দাড়াঁনোর পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে, যা এক বছর আগের একই সময়ের চেয়ে ২৮ দশমিক ৭ শতাংশ কম। বিশ্লেষকদের পক্ষ থেকে গত বছরের চতুর্থ প্রান্তিকে এর পরিচালন মুনাফা ১৩ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ওনে পৌঁছানোর পূর্বাভাস দেয়া হয়েছিল।

চলতি মাসের শেষদিকে অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকের চূড়ান্ত আর্থিক খতিয়ান প্রকাশ করতে পারে স্যামসাং। গত বছরের জন্য পরিচালন মুনাফা ৫৮ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ওনে পৌঁছানোর আশা করা হচ্ছে, যা এক বছর আগের চেয়ে ১০ শতাংশ বেশি। অন্যদিকে এর মোট বিক্রি ১ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়ে ২৪৩ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ওনে পৌঁছানোর প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

চীনা হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ডগুলোর কারণে বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে তীব্র প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হচ্ছে স্যামসাং। হুয়াওয়ে, শাওমি, অপো ও ভিভোর মতো চীনা হ্যান্ডসেট নির্মাতা আগ্রাসী ব্যবসানীতি অনুসরণ করে আসছে। যে কারণে স্যামসাং ও অ্যাপলের মতো প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলোর বাজার দখল কমলেও সাশ্রয়ী চীনা ব্র্যান্ডগুলোর দখল ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারে এরই মধ্যে অ্যাপলকে হটিয়ে দ্বিতীয় শীর্ষ অবস্থানে জায়গা করে নিয়েছে হুয়াওয়ে। বাজার দখলে শীর্ষে থাকা স্যামসাংকে পেছনে ফেলার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে এ চীনা টেলিকম সরঞ্জাম নির্মাতা। অন্যদিকে মেমোরি চিপ বাজারে খারাপ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। টানা কয়েক প্রান্তিক ধরেই মেমোরি চিপের দাম কমছে। এর প্রভাব পড়তে যাচ্ছে স্যামসাংয়ের অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকের আয়ে।

বৈশ্বিক বাজারে মোবাইল ডিভাইসের মেমোরি চিপের চাহিদা স্থিতিশীল পর্যায়ে রয়েছে। তবে ডাটা সেন্টারের চিপের চাহিদা প্রত্যাশার চেয়েও কমেছে। এটি মেমোরি চিপের দাম কমার প্রধান কারণ। চলতি বছরের প্রথমার্ধজুড়েই এ পরিস্থিতি বিদ্যমান থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে দ্বিতীয়ার্ধে মেমোরি চিপ ব্যবসা বিভাগের সংকট অনেকটাই কাটিয়ে ওঠার আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়েছে।

মেরিটজ সিকিউরিটিজের বিশ্লেষক কিম সান-উ ভিন্ন ইঙ্গিত দিয়েছেন। তিনি দাবি করেন, সেমিকন্ডাক্টর পণ্যের সরবরাহ এবং চাহিদা কমার প্রভাব পড়বে স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন ব্যবসায়। যে কারণে চলতি বছরজুড়েই প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা কমার পূর্বাভাস দিয়েছেন তিনি। ডিআরএএম মেমোরি চিপের চাহিদা টানা চতুর্থ প্রান্তিক ধরেই কমছে।

বৈশ্বিক স্মার্টফোন বাজারের ২০ শতাংশ দখলে নিয়ে শীর্ষ অবস্থান ধরে রেখেছে স্যামসাং। ডিভাইস বাজারে হুয়াওয়ের সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতা করতে হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটিকে। স্মার্টফোনের বৃহৎ দুই বাজার চীন ও ভারত। উভয় বাজারে হুয়াওয়ে ও শাওমির কাছে দখল হারিয়েছে স্যামসাং। বিশেষ করে চীনে স্থানীয় ডিভাইস নির্মাতাদের কারণে স্যামসাংয়ের বাজার দখল ১ শতাংশের নিচে নেমেছে। বাধ্য হয়ে গত মাসে চীনের তিয়ানজিন কারখানা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে স্যামসাং।

আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে একযোগে কয়েকটি ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস উন্মোচনের আশা করছে স্যামসাং। একই সময় উন্মোচন করা হতে পারে এর বহুল প্রত্যাশিত ফোল্ডেবল স্মার্টফোন। ডিভাইসগুলো বাজারে আসতে আরো কিছুটা সময় লাগবে। নতুন ডিভাইসগুলোর সরবরাহ শুরু হলে স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন ব্যবসায় পরিবর্তনের আশা করা হচ্ছে।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর