মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৪ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৮ জনের রাণীনগরে গোয়াল ঘরের তালা ভেঙ্গে কৃষকের ৫টি গরু চুরি পোরশায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই বছরের শিশুর মৃত্যু রাণীনগরে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁয় তরুন তরুনীদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত গনসচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে নওগাঁ সদর মডেল থানা পুলিশের র‌্যালী সাপাহারে জনসচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা রাণীনগরে গাঁজাসহ আটক ২ নওগাঁ ১১ জনের ডেঙ্গু সনাক্ত, ৮ জন চিকিৎসাধীন আত্রাই থানা পুলিশের সচেতনতা মূলক র‌্যালি অনুষ্ঠিত ধামইরহাটে গনসচেতনতা দিবস উপলক্ষে র‍্যালী অনুষ্ঠিত সাপাহারে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মশক নিধন লিফলেট বিতরণ ৬ দফা দাবিতে নওগাঁ প্রেসক্লাবে হেযবুত তওহীদের সংবাদ সম্মেলন মান্দায় ‘মাদক ও ইভটিজিং সচেতনতা কার্যক্রম’র আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত
১০৭

নিজের কিডনি বিক্রি করে মেয়েকে বাঁচাতে চান বাবা

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০১৯  

কিডনি ক্যানসারে আক্রান্ত শিশু মরিয়ম।

কিডনি ক্যানসারে আক্রান্ত শিশু মরিয়ম।

পরিবারের বড্ড আদুরে মরিয়ম। বয়স ৫ বছর। তাকে নিয়ে বেশ ভালোই চলছিল নওগাঁ জেলার মহাদবেপুর উপজেলার জোয়ানপুর গ্রামের ময়নুল ইসলামের দিন। গত বছরের অক্টোবর মাসে পেটের ব্যাথায় ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান মরিয়মকে। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানা যায়, পরিবারের একমাত্র সন্তানের কিডনিতে ক্যানসার হয়েছে। তাকে বাঁচাতে গরীব বাবা ময়নুল সকল সম্পদ বিক্রি করে দেন। দীর্ঘদিন ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎসার পর ঢাকা মহাখালী ক্যানসার হাসপাতালে মরিয়মের অস্ত্রোপাচার করে একটি কিডনি অপসারণ করতে হয়েছে।

এরপর দীর্ঘদিন ঢাকা মহাখালী ক্যানসার হাসপাতালে মরিয়মের চিকিৎসা চলে। এখনো মরিয়মকে ৭ দিন পর পর কেমোথেরাপী দিতে হচ্ছে। প্রতিবার কেমো দিতে খরচ পড়ছে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। এ কেমো দিতে হবে আরও ২ মাস। মরিয়মকে সুস্থ্য করতে এখনো ১ থেকে দেড় লাখ টাকা প্রয়োজন। কিন্তু এত টাকা জোগাড় করার মতো সামর্থ্য তার বাবা-মায়ের আর নেই। মেয়েকে বাঁচাতে মরিয়মের বাবা বিভিন্ন সরকারী ও বেরকারী দপ্তরে আবেদন করেছেন। কিন্তু কোথাও থেকে এখন পর্যন্ত কোন প্রকার সহযোগীতা পাননি তিনি।

আর তাই কোন উপায় না পেয়ে মরিয়মের বাবা নিজের একটি কিডনি বিক্রি করে মেয়েকে বাঁচাতে চান। সে নিজের কিডনি বিক্রির জন্য নিজের রক্ত ও কিডনি ডাক্তার দিয়ে পরীক্ষাও করেছেন। এখন সে ক্রেতা খুঁজছেন তার একটি কিডনি বিক্রির জন্য। এ অবস্থায় একমাত্র মেয়ের জীবন বাঁচাতে মা রিনা খাতুন সমাজের হৃদয়বান ও বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: ময়নুল ইসলাম, সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর: ০১০০১৬২৬১৩৫১৫, জনতা ব্যাংক লিমিটেড, মহাদেবপুর শাখা, নওগাঁ। মোবাইল নাম্বার: ০১৭৬২-৭৬০৭৬৮

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর