মঙ্গলবার   ২৬ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭   ০৩ শাওয়াল ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
১১২

দুই দিন পর গভীর কূপ থেকে উদ্ধার শিশুটি

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ২৭ অক্টোবর ২০১৯  

বাড়ির সামনেই খেলছিল ২ বছরের সুজিত উইলসন। খেলতে খেলতে অসাবধানতায় ৬৫ ফুট গভীর কুয়োতে পড়ে যায় শিশুটি। সে সময় আশেপাশে কেউ না থাকায় প্রথমে ব্যাপারটা কারও নজরেই আসেনি। শুক্রবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার ভারতের তামিলনাড়ুর তিরুচিরাপল্লীতে ঘটে এই দুর্ঘটনা। তারপর প্রায় ১৮ ঘণ্টা ওই গভীর কুয়োতেই আটকে ছিল শিশুটি। তবে শেষ পর্যন্ত বাচ্চাটিকে উদ্ধার করে ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ)-এর বিশেষ টিম।
 
শনিবার প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় পুলিশের সিনিয়র অফিসার জিয়াউল হক জানান, খবর শুনেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। খবর দেওয়া হয় জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলাকারী দলকেও।

উদ্ধারকারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর পর যে কুয়োতে শিশুটি পড়ে গিয়েছিল তার পাশে একটি সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ শুরু করে দেয়। উদ্দেশ্য এই সুড়ঙ্গ দিয়ে প্রথমে কাদামাটি বের করে আনা হবে। তারপর দুই বছরের সুজিতকে উদ্ধার করে ওই একইপথে বের করে আনা হবে। কিন্তু সুড়ঙ্গ খোঁড়ার সময় পাথরে আঘাত লাগে। সেই সময়েই খোঁড়া বন্ধ করে দেওয়া হয়। এনডিআর টিমের বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা ছিল, যে কোনওভাবে খুঁড়তে গিয়ে এই পাথর আলগা হয়ে গেলে শিশুটির বিপদ হতে পারতো।

তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী সি বিজয়ভাস্কর জানিয়েছেন, কুয়োর ভেতর ২৬ ফুট নিচে আটকে গিয়েছিল সুজিত। ওপর থেকে ক্রমাগত পাঠানো হচ্ছিল অক্সিজেন। কিন্তু প্রায় ১৮ ঘণ্টা পানি ও খাবার ছাড়া ছিল দুই বছরের শিশুটি। তবে এ যাত্রায় বড় ধরনের কোনও অঘটন ঘটেনি। একটি পাইপে করে দড়ি পাঠানো হয়েছিল কুয়োর তলায়। তবে শিশুটির হাতে সেই দড়ির ফাঁস জড়িয়ে উপরে তোলার সময় শেষ মুহূর্তে আলগা হয়ে যায় হাতের বাঁধন। পরে অবশ্য দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় ওই কাদা জমাট এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধারে সক্ষম হয় উদ্ধারকারী দল। 

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর