সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৬ ১৪২৬   ০৫ শা'বান ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
২১

তারেক রহমানের চাকরি করেন মির্জা ফখরুল, বললেন জাফরুল্লাহ!

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০২০  

দেশের বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে বিএনপিকে বাস্তবতা বুঝে সত্য কথা বলতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেছেন, দেশের রাজনীতির গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো এড়িয়ে চলার একটা প্রবণতা বিএনপির হাইকমান্ড কার্যক্রমে দৃশ্যমান যা তাদের সাংগঠনিক ভঙ্গুরতাকে প্রকাশ করছে।

জানতে চাইলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিএনপির স্বার্থে নেতৃত্বের দুর্বলতা, সাংগঠনিক ব্যর্থতা, তারেক রহমানের দ্বি-মুখী নীতির সমালোচনা করতে শিখতে হবে দলটির নেতাদের। দলের দুর্বলতা দূর করতে হলে লেজুড়বৃত্তি বাদ দিয়ে বিএনপি নেতারা মানসিকভাবে শক্তিশালী হতে হবে। দলের জন্য ক্ষতিকারক স্বৈরাচারী সিদ্ধান্তে প্রতিবাদ করতে না শিখলে দলটি একটা সময়ে রাজনৈতিক সংকটে পড়বে বলেও মনে করছেন।

বিএনপির রাজনৈতিক দুর্দশা ও বর্তমান নেতৃত্ব নিয়ে চলমান দলীয় সংকটের বিষয়ে জানতে চাইলে এমনটাই জানিয়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ। তিনি আরও বলেন, দেশের রাজনীতি এখন নানা ইস্যুতে পরিপূর্ণ। ইস্যুভিত্তিক রাজনীতি করলেও বিএনপি জনগণের সমর্থন ও সহায়তা পেতে পারে। কিন্তু বিএনপি হাইকমান্ডের এই ধরণের কোনো চিন্তাই দেখছি না আমি। দেশের সংকট, রাজনীতির সংকটে বিএনপি নেতাদের সত্য কথা বলতে হবে। কিন্তু বিএনপি নেতারা দেশের সংকটে বিভ্রান্তিমূলক কথাবার্তা বলেন এবং লন্ডনে থাকা এক নেতার আশীর্বাদ পেতে নানা রকম চাটুকারিতা ও তোষামোদিতে ব্যস্ত থাকেন। বিষয়টি দুঃখজনক।

বিএনপিপন্থী এই বুদ্ধিজীবী আরো বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক দুর্দশায় তোষামোদি না করে বিএনপি নেতাদের বরং লন্ডনের স্বৈরাচারী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করা শিখতে হবে। একজন নেতা সব সময় সঠিক সিদ্ধান্ত দিতে পারেন, এমন ভুল ধারণা থেকে বিএনপিকে বের হয়ে আসতে হবে। মির্জা ফখরুল ও অন্যান্য বিএনপি নেতাদের কাজকর্ম ও মনোভাবে মনে হয় যে, তারা তারেক রহমানের চাকরি করেন। রাজনৈতিক দল যদি ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠানে পরিণত না হয় সেটি মির্জা ফখরুলদের খেয়াল রাখতে হবে। বিএনপিকে প্রভু ও ভৃত্যের রাজনৈতিক হলে চলবে না। বিএনপিকে সার্বজনীন রাজনৈতিক দল হতে হবে, তবেই তাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণ হবে।

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর