• বুধবার   ০৮ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৫ ১৪২৬

  • || ১৪ শা'বান ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
২৬

ড. কামালকে ২ সপ্তাহের আল্টিমেটাম!

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২০  

কমিটি ভেঙে দিয়ে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন কয়েকজন শীর্ষ নেতাকে বাদ দিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করায় গণফোরামে জ্বলছে আগুন। বঞ্চিত নেতারা বলছেন, টাউটদের পাল্লায় পরে ড. কামাল এমনটি করছেন। কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করে তারা এও বলেছেন যে, ড. কামাল এখন টাউটদের নেতা হয়েছেন। এমন প্রেক্ষাপটে দলকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা করে নিজেদের পদে আসীন রেখে দলীয় ঐক্য রক্ষার উদ্যোগ নিতে ২ সপ্তাহের আল্টিমেটাম দিয়েছে বঞ্চিতরা।

শনিবার (১৪ মার্চ) বিকালে রাজধানীর মতিঝিলে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনকে ২ সপ্তাহের সময় বেঁধে দিয়েছেন দলটির আহ্বায়ক কমিটি থেকে বাদ পড়া নেতারা। সদ্য ভেঙে দেওয়া ওই কমিটির নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ বলেছেন, আমরা গণফোরামের দীর্ঘদিনের মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মী হিসেবে ড. কামাল হোসেনকে আহ্বান জানাচ্ছি, অনতিবিলম্বে দলের প্রবীণ নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করে দলকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষায় ও দলীয় ঐক্য রক্ষায় উদ্যোগ নিন। এজন্য আপনাকে দুই সপ্তাহের সময় দেওয়া হলো।

আবু সাইয়িদ বলেন, ড. কামালকে সামনে রেখে উচ্চবিলাসী ও কুচক্রী মহল দলে ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থে অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে গত ১০ মাস কেন্দ্রীয় কমিটির সভা আহ্বান করেনি। ফলে দলের মধ্যে বহিষ্কার, পাল্টা-বহিষ্কারের ঘটনা ঘটেছে। এখানে ড. কামালেরও অদূরদর্শিতা আছে। তাই আমরা সময় বেঁধে দিচ্ছি। এ সময়ের মধ্যে যদি কোনো পরিবর্তন না আসে তাহলে আমরা আমাদের মতো চূড়ান্ত ব্যবস্থা নেব!

আপনাদের দেওয়ার ২ সপ্তাহের মধ্যে ড. কামাল উদ্যোগ না নিলে কি নতুন দল করবেন? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু বলেন, সেটা এখন বলতে পারবো না। সময় ও পরিস্থিতি ওপর নির্ভর করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। আজকের সভা দুই সপ্তাহের জন্য মুলতবি করা হয়েছে। দুই সপ্তাহে পরে এখানেই সভা করে আমার সিদ্ধান্ত জানাবো।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ভেঙে দেওয়া কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক, সাংগঠনিক সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম প্রমুখ।

নওগাঁ দর্পন
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর