রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
পত্নীতলায় আদিবাসী প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার চাকুরির প্রলোভনে মান্দার মেয়েকে ঢাকায় ধর্ষণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং (৭৮৭-৮) ড্রিমলাইনার গাঙচিল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধামইরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৬ জনের জেল ও জরিমানা আত্রাইয়ে ডেঙ্গু সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপাহারে পরিস্কার অভিযান সাপাহার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৯জন আটক গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে নিয়ামতপুরে আলোচনা সভা সাপাহারের করল্যা চাষে বিপ্লব
৭০

ডেঙ্গু ধরা পড়লে যা যা খেতে হবে

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০১৯  

বলা বাহুল্য অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর ডেঙ্গুর প্রকোপ একটু বেশিই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বর্তমানে ঘরে ঘরে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

বর্তমান পরিস্থিতি এমন হয়ে দাড়িয়েছে যে, হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাই সব থেকে বেশি দেখা যাচ্ছে। যা বর্তমানে ভয়াবহ দুশ্চিন্তার ব্যাপার।

শত সতর্কতা অবলম্বন করার পরও কোথায়, কীভাবে যে মশা কামড়াচ্ছে তা বোঝাই দায়। কোনভাবেই যেন এ রোগ ঠেকানো সম্ভব হচ্ছে না। মশা নিধনের কাজটা বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় যেতে হচ্ছে। কিন্তু ডেঙ্গু হয়ে গেলে তখন তো তড়িৎ পরামর্শ চাই।

ডেঙ্গু হলে রক্তে অনুচক্রিকার সংখ্যা কমে যায়। সেই সঙ্গেই ডায়রিয়ার কারণে ডিহাইড্রেশন হয়। এই রোগে শরীরে প্রচুর পানির প্রয়োজন। ডেঙ্গু হলে তাই শিশু, প্রাপ্তবয়স্ক সকলেরই ডায়েটে প্রচুর পরিমাণ পানি বা তরল খাবার রাখা প্রয়োজন। জেনে নিন কী কী তরল খাবার রাখবেন খাদ্যতালিকায় :

শুধু যে ডায়রিয়া হলে ডিহাইড্রেশন হয় এমনটি নয়। ডেঙ্গু জ্বর হলেও ডিহাইড্রেশনের মাত্রা বাড়তে পারে। তাই জ্বর হলে পর্যাপ্ত পরিমান পানি পান করতেই হবে।

সাধারমত বমি বমি ভাব থাকলে বাচ্চারা পানি খেতে চায় না। সে ক্ষেত্রে ওদের অল্প অল্প করে বারে বারে পানি খাওয়াতে হবে।

পানির পাশাপাশি লেবুর শরবত, টাটকা ফলের রস, স্যুপ, হাল্কা লিকার চা, ডাবের পানি সহ পর্যাপ্ত লিকুইড ডায়েট প্রয়োজন।

বাড়িতে রান্না করা টাটকা ও হালকা সব রকমের খাবারই খাওয়া খেতে হবে।

প্রত্যেকবার খাবারের সাথে পানি বা শরবত অর্থাৎ তরল জাতীয় খাদ্য খেতে হবে।

পানি পানের ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটা নির্দেশিকা রয়েছে। শরীরের প্রতিকেজি ওজন পিছু একজন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর প্রত্যেক ঘণ্টায় ৭ মিলিলিটার লিকুইড গ্রহণ করা উচিত।

এই নির্দেশিকা অনুযায়ী একজন ২০ কেজি ওজনের বাচ্চার প্রত্যেক ঘণ্টায় ন্যূনতম ১৪০ মিলিলিটার পানি বা জলীয় খাবার খেতে হবে।

৫০ কেজি ওজনের প্রাপ্তবয়স্কের মানুষের ৩৫০ মিলিলিটার পানি, শরবত বা স্যুপ খাওয়া জরুরি।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর