রোববার   ২০ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২০ সফর ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
পত্নীতলায় আদিবাসী প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার চাকুরির প্রলোভনে মান্দার মেয়েকে ঢাকায় ধর্ষণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং (৭৮৭-৮) ড্রিমলাইনার গাঙচিল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধামইরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৬ জনের জেল ও জরিমানা আত্রাইয়ে ডেঙ্গু সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপাহারে পরিস্কার অভিযান সাপাহার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৯জন আটক গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে নিয়ামতপুরে আলোচনা সভা সাপাহারের করল্যা চাষে বিপ্লব
৪০৯

চীনের প্রেসিডেন্ট শির সঙ্গে তিনবার বৈঠক করেন উত্তর কোরিয়ার কিম

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০১৯  

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে চারদিনের সফরে মঙ্গলবার বেইজিং পৌঁছেছেন। একদিকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের দ্বিতীয় সম্মেলন আয়োজন নিয়ে আলোচনা, অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা ও চাপ না কমলে বিকল্প পথ ধরার হুমকি— এমন পরিস্থিতির মধ্যেই চীনে পা রাখলেন কিম। পিয়ংইয়ং নিশ্চিত না করলেও বলা হচ্ছে, মঙ্গলবার কিমের জন্মদিন। খবর রয়টার্স ও বিবিসি।

কিমের চীন সফরের বিষয়টি মঙ্গলবার সকালে উভয় দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত গণমাধ্যমগুলো নিশ্চিত করে। সদ্যসমাপ্ত বছরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জা-ইনের সঙ্গে সাক্ষাতের আগে-পরে চীনের প্রেসিডেন্ট শির সঙ্গে তিনবার বৈঠক করেন উত্তর কোরিয়ার কিম।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সেন্টার ফর দ্য ন্যাশনাল ইন্টারেস্ট এক বিবৃতিতে জানায়, ‘কিম ট্রাম্প প্রশাসনকে স্মরণ করিয়ে দিতে চান যে, তার হাতে কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিকল্প রয়েছে। এমনকি নতুন বছরে দেয়া ভাষণে কিমের ‘নতুন পথ’ শব্দটি বেইজিংয়ের সঙ্গে আরো ঘনিষ্ঠ হওয়ারই হুমকি।’

এদিকে গত সোমবার বিকালে স্ত্রী রি সোল জু এবং বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে ব্যক্তিগত ট্রেনে চেপে চীনের উদ্দেশে যাত্রা করেন কিম জং-উন। সফরসঙ্গীদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে শীর্ষ আলোচক কিম ইয়ং চোল এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং হো রয়েছেন বলে পিয়ংইয়ংয়ের রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা কেসিএনএর পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা সিনহুয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কিমের সফরটি সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চলবে।

সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদ সংস্থা ইয়ুনহাপের এক প্রতিবেদন প্রকাশের পর থেকেই কিমের চীন সফর নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার একটি ট্রেনকে সীমান্ত অতিক্রম করতে দেখা গেছে। শেষ পর্যন্ত হলুদ দাগকাটা সবুজ রঙের ট্রেনটি কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সীমান্তবর্তী শহর ডানডংয়ে থামে। কিন্তু তখনো নিশ্চিত ছিল না যে এ ট্রেনের ভেতর কিম ও তার সফরসঙ্গীরা রয়েছেন। পরবর্তীতে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে একটি মোটর শোভাযাত্রা মধ্য বেইজিংয়ে প্রবেশ করে।

উত্তর কোরিয়ার নেতৃত্ব গ্রহণের ছয় বছরের মধ্যে দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক মিত্র চীনে সফর করেননি কিম। তবে শুধু গত বছরই পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই তিনবার চীন সফর করেন তিনি। আর মঙ্গলবার কিম যখন চীনে অবস্থান করছেন, তখন মার্কিন প্রতিনিধিরাও বেইজিংয়ে বাণিজ্য বিরোধ নিষ্পত্তির বিষয়ে আলোচনা করছেন।

সিএনবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও উত্তর কোরিয়া সংকট সমাধানে সহায়তার জন্য চীনের প্রশংসা করেন। তিনি আরো জানান, তিনি মনে করেন না কিমের সফর যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনের বাণিজ্য বিবাদে কোনো প্রভাব ফেলবে।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর