সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০   চৈত্র ১৬ ১৪২৬   ০৫ শা'বান ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
২১

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে তারেককন্যা জাইমা

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২০  

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজয়, দল পরিচালনায় নানাবিধ সংকট নিয়ে সমস্যায় জর্জরিত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নেতা তারেক রহমান এবার তার বড় মেয়ে জাইমা রহমানকে নিয়ে পড়েছেন নতুন সংকটে। জাইমা রহমান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বিষয়টি জানাজানি হলেও জিয়া পরিবারকে বিব্রতকর অবস্থায় পড়তে হবে এবং তারেকের পরিবার লন্ডনে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বেন- এমন শঙ্কায় জাইমা রহমানকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। জাইমার মাধ্যমে সেই ভাইরাস তারেক রহমানের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়েছে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। যার কারণে তারেক রহমান বিএনপি নেতাদের সাথে সাক্ষাতও করছেন না বলেও জানা গেছে।

লন্ডনভিত্তিক একাধিক গোপন সূত্রের বরাতে তারেক পরিবারের মাঝে করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিষয়ে জানা গেছে।

লন্ডনের কিংস্টন এলাকার বাঙালি কমিউনিটির একটি দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, বার এ্যাট ‘ল শেষ করার করার পর ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে চিত্তবিনোদনের জন্য বন্ধুদের সাথে ইতালি গিয়েছিলেন জাইমা রহমান। সেখানে পাকিস্তানি বন্ধুদের সাথে সপ্তাহখানেক দর্শনীয় স্থানগুলোতে ঘুরে বেড়ান জাইমা। তারেক রহমানের আপত্তি থাকলেও মা জোবায়দা রহমানের সম্মতিতে ইতালি সফর করেন জাইমা। কিন্তু মার্চ মাসের প্রথম দিকে ইতালি থেকে লন্ডনে পা রাখার পর থেকেই জাইমার প্রচণ্ড জ্বর, সর্দি, গলাব্যথা শুরু হলে তাকে ঘরোয়া চিকিৎসা দেয়া হয়। কিন্তু জ্বর-সর্দি না কমায় গোপনে লন্ডনে এক বিএনপি নেতার ক্লিনিকে টেস্ট করালে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে জাইমার শরীরে।

কিন্তু বিষয়টি নিয়ে যেন লন্ডনে বিএনপির রাজনীতিতে নতুন আলোচনা-সমালোচনার জন্ম না হয়, তাই এটি গোপন রাখা হয়েছিল। গুঞ্জন উঠেছে, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা জাইমার শরীর থেকে সেই ভাইরাস তারেক রহমানের শরীরেও ছড়িয়ে পড়েছে। তাই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় তারেক রহমান নেতা-কর্মীদের সাথে সাক্ষাৎ করছেন না।

তারেককন্যা জাইমা রহমানের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টির সত্যতা সম্পর্কে জানতে চাইলে যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি আব্দুল মালিক বলেন, জাইমা রহমানের অসুস্থতার বিষয়টি সম্পর্কে জেনেছি। তবে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না- সেই বিষয়ে আমি নিশ্চিত নই। তবে তারেক রহমান ব্যক্তিগত ব্যবস্থার কারণে আগামী এক সপ্তাহ দেখা না করতে নির্দেশ দিয়েছেন। জেনেছি তিনিও নাকি জ্বর-সর্দিতে আক্রান্ত। তবে এটি কতোটুকু সত্য সেটির বিষয়ে আমি নিশ্চিত নই।

নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর