রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২২ মুহররম ১৪৪১

নওগাঁ দর্পন
সর্বশেষ:
পত্নীতলায় আদিবাসী প্রেমিক যুগলের লাশ উদ্ধার চাকুরির প্রলোভনে মান্দার মেয়েকে ঢাকায় ধর্ষণ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং (৭৮৭-৮) ড্রিমলাইনার গাঙচিল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধামইরহাটে মাদক সেবনের দায়ে ৬ জনের জেল ও জরিমানা আত্রাইয়ে ডেঙ্গু সচেতনতা মূলক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় সাপাহারে পরিস্কার অভিযান সাপাহার ঐতিহ্যবাহী জবই বিলে মাছের পোনা অবমুক্ত আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৯জন আটক গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে নিয়ামতপুরে আলোচনা সভা সাপাহারের করল্যা চাষে বিপ্লব
৩০

আরও শীতল হতে শীতের অপেক্ষায় বিএনপি, তৃণমূলের তাচ্ছিল্য!

ডেস্ক নিউজ

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

চরম দুর্দিনে রাজনৈতিক সংকট অতিবাহিত করছে বিএনপি। আর তাই সুদিন ফেরাতে রাজপথে আন্দোলনের কথা ভাবছে দলটি। গত এক যুগে বড় দুটি আন্দোলনে ব্যর্থ হলেও এবার সফলতা চায় বিএনপি। তবে আসন্ন শীতের জন্য অপেক্ষা করছে দলটি। আর তাতে একমত হতে পারছে না তৃণমূল।

তারা বলছে, পরিস্থিতি আন্দোলনের দাবি করলেও কেন্দ্র অপেক্ষা করছে শীতের জন্য। যদি শীতের জন্য অপেক্ষা করে তবে দলে আরও শীতলতা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। নেতাদের মানসিকতা শীতল হয়ে পড়লে আন্দোলন গড়ে তোলাকে অসম্ভব মানছেন তারা।

বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা জানান, একটি ‘বড়’ আন্দোলন গড়ে তুলতে পারলে দলে যে সমস্যা, তা বহুলাংশেই কেটে যাবে। কিন্তু শীতের জন্য অপেক্ষা করতে চাইছে না তৃণমূল। তাই আমাদের ইচ্ছা আছে সংগঠন পুনর্গঠন করে আগামী জানুয়ারি অর্থাৎ শীত মৌসুমে বিরতিহীন আন্দোলনে নামবো।

বিএনপির একটি সূত্র বলছে, টানা ১৩ বছর দল ক্ষমতায় না থাকার কারণে নেতা-কর্মীরা হতাশ। দলের চেয়ারপারসনের কারাবাস নেতা-কর্মীদের হতাশা আরও বাড়িয়েছে। এ অবস্থায় করণীয় কী, তার সমাধান বের করতে দলের নীতিনির্ধারকরা প্রতি সপ্তাহে একাধিকবার বসছেন। তারা আন্দোলন বেগবান করার লক্ষ্যে কাজ করছেন। কিন্তু কেন্দ্রের ধীরগতির নীতিতে আস্থা রাখতে পারছে না তৃণমূলের নেতারা।

এই বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তৃণমূলে জনপ্রিয় বিএনপির একজন সিনিয়র নেতা বলেন, আন্দোলন ছাড়া বিকল্প কিছু বিএনপির সামনে নেই- এটি সত্য। কিন্তু কেন্দ্রীয় নেতাদের ধারণা, একটি বা একাধিক ইস্যুতে একটি ‘বড়’ আন্দোলন গড়ে তুলতে পারলে রাজনৈতিক পরিস্থিতি পাল্টে যাবে। তখন ক্ষমতাসীন ও সাধারণ জনগণ বিএনপির সামর্থ্য, শক্তি সম্পর্কে ধারণা পাবে। কিন্তু ‘বিপুল’ জনসমর্থন থাকা সত্ত্বেও দলটির নেতৃত্বে আন্দোলন না হওয়ায় দলের নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে বিএনপি সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হয়েছে। আরো দেরি করা হলে বিএনপির আন্দোলন ভাগাড়ে পড়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৩-১৪ ও ২০১৫ সালে দুই দফা বড় আন্দোলনে ব্যর্থতার কারণে সাংগঠনিকভাবে ছিন্নভিন্ন হয়ে পড়ে বিএনপি। পাশাপাশি জাতীয় নির্বাচনে অনাকাঙ্ক্ষিত ফলাফলে চরম বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে দলটি। যা কাটিয়ে উঠতে পারছে না বিএনপি।

নওগাঁ দর্পন
নওগাঁ দর্পন
এই বিভাগের আরো খবর